নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসনের বিশেষ জরুরী আইন-শৃঙ্খলা সভা বয়কট

Views
Charu Barta24 । । চারু বার্তা ২৪


আমিরুল ইসলাম, শেরপুর প্রতিনিধি:
শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক আহবান করা জরুরী বিশেষ আইন-শৃঙ্খলা সভা বয়কট করে বেরিয়ে গেছেন জনপ্রতিনিধি ও সরকারদলীয় নেতৃবৃন্দ। অবৈধ বালু উত্তোলনে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালতবিরোধী বালু ব্যবসায়ী-শ্রমিকদের বিক্ষোভ মিছিলের পরিপ্রেক্ষিত আইনগত ব্যবস্থা না নেওয়ায় অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য উপজেলা প্রশাসনের সবধরণের সভা বয়কট করেছেন তারা। সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে জনপ্রতিনিধি ও নেতৃবৃন্দ এমন ঘোষণা দিয়ে সভাস্থল ত্যাগ করেন।

জানা গেছে, রবিবার বিকেলে উপজেলার সীমান্তবর্তী চেল্লাখালী নদীর ইজারা বহির্ভূত স্থান থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনবিরোধী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকতা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহ্ফুজুল আলম মাসুম। আদালত চলাকালে অবৈধ স্থান থেকে উত্তোলিত বালু পরিবহন করায় দুই ট্রাক বালু জব্দ এবং মাসুদ নামে এক ব্যবসায়ীকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন তিনি। এতে সন্ধ্যায় সংশ্লিষ্ট বালু ব্যবসায়ী ও শ্রমিকরা শহরে ভ্রাম্যমাণ আদালতবিরোধী বিভিন্ন শ্লোগান দিয়ে মিছিল করে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় এলাকায় গিয়ে বিক্ষোভ করে। এসময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোকছেদুর রহমান লেবু তাদের নিবৃত করে ফিরিয়ে দিলে পরবর্তীতে তার উপস্থিতিতেই কাচারীপাড়াস্থ কার্যালয়ে প্রশাসনের প্রতি পাল্টা অভিযোগ এনে কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন উল্লেখিত ব্যবসায়ী-শ্রমিকরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে উপজেলা প্রশাসনের কার্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

এদিকে পরিস্থিতি বিবেচনায় জরুরী ভিত্তিতে সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে বিশেষ আইন-শৃঙ্খলা সভা আহবান করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি মাহ্ফুজুল আলম মাসুম। বেলা বারোটায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সভাপতিত্বে সভা শুরু হলে সদস্যদের বক্তব্যের একপর্যায়ে রবিবারের ঘটনায় আইনী পদক্ষেপ নিতে উপজেলা প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য জনপ্রতিনিধি ও নেতৃবৃন্দ। এসময় বালু ব্যবসায়ীদের পক্ষে কতিপয় যুবক ওই সভাস্থলে প্রবেশ করতে চাইলে সভায় হট্টগোল তৈরি হয়। উপস্থিত নেতৃবৃন্দ ও পৌর মেয়রসহ বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যানগণ ইউএনও’র ভূমিকায় অসন্তোষ প্রকাশ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেওয়া পর্যন্ত প্রশাসনের সবধরণের সভায় যোগদান থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দেন এবং সভা বয়কট করে সভাস্থল ত্যাগ করেন। ফলে সভা পণ্ড হয়ে যায়।

এ বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্য সচিব ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল জানান, পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে আছে এবং আমরা তদন্ত কার্যক্রম চালাচ্ছি। উপজেলা প্রশাসন চাইলে সবধরণের আইনী সহযোগিতা করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি মাহ্ফুজুল আলম মাসুম কমিটির সদস্য তথা জনপ্রতিনিধি ও নেতৃবৃন্দের প্রতিক্রিয়াকে সম্মান জানিয়ে বলেন, উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Charu Barta24 । । চারু বার্তা ২৪

মন্তব্য করুন