শেরপুর জনউদ্যোগ কমিটির ষান্মাসিক কর্মপরিকল্পনা সভা :

Views
Charu Barta24 । । চারু বার্তা ২৪

ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ বাড়ানো-মুল্য কমানোর দাবীতে ক্যাম্পেইন ২০ জুলাই

স্টাফ রিপোর্টার:
বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে ইন্টারনেট ও তথ্যপ্রযুক্তি হয়ে ওঠেছে যোগাযোগ এবং শিক্ষা ও বিনোদনের গুরত্বপূর্ণ মাধ্যম। কিন্তু শেরপুরে ইন্টারনেটের ধীরগতি এবং উচ্চমুল্যের কারণে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে অনলাইন ভিত্তিক শিক্ষা-যোগাযোগ ও সেবা কার্যক্রম। অনলাইন শিক্ষার সুযোগ বঞ্চিত হচ্ছে দরিদ্র শিক্ষার্থীরা। এজন্য ইন্টারনেটের ব্যান্ডউইথ বৃদ্ধি এবং ইন্টারনেট পরিষেবার মুল্য কমিয়ে সকল শ্রেনীর মানুষের জন্য সহজলভ্য করার দাবীতে ‘সিগনেচার ক্যাম্পেইন’ (স্বাক্ষর সংগ্রহ) কর্মসূচি ঘোষণা করেছে নাগরিক প্ল্যাটফরম জনউদ্যোগ শেরপুর কমিটি। আগামী ২০ জুলাই সোমবার শহরের নিউমার্কেট চত্বরে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে এ ‘সিগনেচার ক্যাম্পেইন’ অনুষ্ঠিত হবে। ১৩ জুলাই সোমবার বিকালে জনউদ্যোগ শেরপুর কমিটির ষান্মাসিক কর্মপরিবল্পনা সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে সরকারি ভিক্টোরিয়া একাডেমি হলরুমে এ কর্মপরিকল্পনা সভাটি অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিগত ৬ মাসের কাজের মুল্যায়ন করে আগামী ৬ মাসের জন্য ইস্যুভিত্তিক কার্যক্রম বাস্তবায়নের কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। এসময় আগামী আগস্ট মাসে হিজড়া জনগোষ্ঠির কর্মসংস্থান ও বাস্তবতা বিষয়ক মতবিনিময় সভা, সেপ্টেম্বরে পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে শহরের জলাবদ্ধতা নিরসন, সুষ্ঠু ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও পয়:নিষ্কাশন, কাঁচাবাজারগুলোতে ডাস্টবিন ও পাবলিক টয়লেট সুবিধা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মতবিনিময় সভা করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এছাড়া নারী-পরিবেশ-জাতিগত সংখ্যালঘু ইস্যু ছাড়াও প্রবীণ উৎসব, শিশু বিনোদন, খাল-বিল, অভয়াশ্রম সহ প্রাকৃতিক জলাশয় সংরক্ষণ, বাজারের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, শহরে গরুর অবাধ বিচরন বন্ধ করা সহ বিভিন্ন নাগরিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা/মতবিনিময় অনুষ্ঠান আয়োজনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে কিভাবে করোনা পরিস্থিতিতে জনউদ্যোগ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা যায় সে বিষয়েও বিভিন্ন কৌশল নিয়ে আলোচনা করা হয়।
এ সভার শুরুতে সদস্য সচিব হাকিম বাবুল বিগত জানুয়ারি-২০২০ থেকে জুন-২০২০ খ্রি. পযন্ত ৬ মাসের বাস্তবায়িত বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন। এসময় করোনা পরিস্থিতিতে জনউদ্যোগের উদ্যাগে ‘অনলাইন স্কুল শেরপুর’ চালু একটি যুগান্তকারি পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেন। শেরপুরের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সহায়তায় চালু করা অনলাইন স্কুল শেরপুর এখন জেলা প্রশাসন পৃষ্ঠপোষকতা করছে। যা এ কার্যক্রমকে আরো বেগবান করেছে। জেলা পুলিশের সহায়তায় করোনা ইমার্জেন্সী রেসপন্স টিমে জনউদ্যোগের স্বেচ্ছাসেবকরা নেতৃত্ব দান করেছে। আইইিিড’র সহায়তায় জনউদ্যোগ শেরপুর কমিটি করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত কর্মহীন মানুষের জন্য খাদ্য ও সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। অনলাইন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, অনলাইন বিতর্ক কর্মশালা, নারী দিবসে অনলাইন আলোচনা পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে কর্মসূচি বাস্তবায়নে নতুন পথের উন্মোচন করেছে। জনউদ্যোগ আহ্বায়ক মো. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় উপস্থিত অংশগ্রহণকারীরা স্থানীয় জনগুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন ইস্যুতে কর্মসূচি গ্রহণের প্রস্তাব তুলে ধরেন। অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন শেরপুর সরকারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক শিব শংকর কারুয়া, জেলা উদীচী সভাপতি ও মডেল গার্লস কলেজের অধ্যক্ষ তপন সারোয়ার, সরকারি ভিক্টোরিয়া একাডেমির প্রধান শিক্ষক মো. রেজুয়ান, জেলা আ’লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মো. শামীম হোসেন, নারী উদ্যোক্তা আইরীন পারভীন, নারীনেত্রী আঞ্জুমান আরা যুথী। এছাড়া শিক্ষিকা শিরিন সুলতানা, বিতার্কিক এসএম ইমতিয়াজ চৌধুরী শৈবাল, কার্টূনিস্ট সাইফুল ইসলাম শাহীন, প্রভাষক আবু হানিফ, সদর উপজেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি সোলায়মান আহমেদ, রক্তদিন জীবন বাঁচান (রজীবা) আহ্বায়ক সোহেল রানা, যুব হরিজন নেত্রী মুক্তা হরিজন প্রমুখ বিভিন্ন প্রস্তাব তুলে ধরেন।

Charu Barta24 । । চারু বার্তা ২৪

মন্তব্য করুন